একজন প্রবাসীর কষ্ট

 
আমি একজন প্রবাসী।আমার জীবনের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ সময় টুকু প্রবাসে কাটিয়ে দেই।কারণ আমরা আমাদের প্রিয় মানুষগুলোকে সুখী দেখতে চাই।সুখী রাখতে চাই বাবা,মা,ভাই,বোন,বউ বাচ্চা সহ সবাইকে। সুখী দেখতে চাই আমাদের প্রিয় মানুষগুলোকে।হাসি মুখে সব কিছু মেনে নিই সকল কষ্ট গুলো ।নিজের মনের ভেতরে যে একটা চাপা কষ্ট লুকিয়ে রাখি সেটা কাউকে বুঝতে দিইনা,কারণ কেউ তো সেটা বুঝবেনা।আমি একজন প্রবাসী।সবাই মনে করে  আমার কাজ শুধু টাকা ইনকাম করা।আমাকে মানুষ মনে করেনা ।সবাই আমাকে রোবট বা মেশিন মনে করে।
বাবা বলে টাকা দে, ভাই বলে টাকা দেও,বোন বলে টাকা দাও আত্নীয় স্বজনরা মনে করে আমি টাকার মেশিন। আমি টাকা দিলে ভালো না দিলে এতো টাকা খরচ করে বিদেশ এসে কি লাভ।কি করেছি আমি জীবনে। জীবনের সকল সুখ বিসর্জন দেয়ার পর ও আমি কারো কাছে ভালো না।কেউ আমাকে ভালোবাসেনা।প্রবাসী জীবন কত শত কষ্ট সহ্য করে বেচে থাকে সেটা তো আর কেউ বুঝবেনা।
জীবনে আমাদের চাওয়া পাওয়া বলতে কোন কিছু নাই।নিজের পরিবার বাবা মা ছেরে একাকী প্রবাসে পরে থাকা যে কত যন্তনার সেটা কেউ বুঝবেনা।সেটা বুঝবে শুধু মাত্র প্রবাসী বন্ধুরা।কত সময় চলে যায় কত মানুষ হারিয়ে যায়।কত মানুষের সাথে শেষ দেখা হয়ে যায়।
তবু এতো কষ্ট বুকে নিয়ে মুখের কুনে ছোট্ট একটা হাসি দিয়ে জানিয়ে দেই আমরা সুখেই আছি
কারণ আমরা সবার মুখে হাসি ফুটাই।এতেই আমাদের আনন্দ সুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.